সব খবর সবার আগে
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

খেলা

বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রস্তুতি ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে হারল বাংলাদেশ

বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রস্তুতি ম্যাচে হারল টাইগাররা। শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে দাপুটে জয় পায় বাংলাদেশ। সোমবার দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৪ উইকেটে হারে সাকিবরা। সোমবার আগে ব্যাট করে মেহেদি হাসান মিরাজের ৭৪ এবং তানজিদ হাসান তামিমের ৪৫ রানের ইনিংসে ভর করে ৩৭ ওভারে ৯ উইকেটে ১৮৮ রান করে বাংলাদেশ।

0 65

বৃষ্টি আইনে ইংল্যান্ডের টার্গেট দাঁড়ায় ৩৭ ওভারে ১৯৭ রান। লক্ষ্য তাড়ায় ৭৭ বল হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে ইংল্যান্ড। দলের জয়ে ৩৯ বলে সর্বোচ্চ ৫৯ রান করেন মঈন আলী।

ইনিংসের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করে ইংল্যান্ড। প্রথম ওভারের প্রথম ৫ বলে ৯ রান করা ইংল্যান্ড, শেষ বলে হারায় উইকেট।

প্রথম ওভারেই দলকে সাফল্য উপহার দেন মোস্তাফিজুর রহমান। কাটার মাস্টারের বলে স্লিপে তানজিদ হাসান তামিমের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন ইংলিশ ওপেনার ডেভিড মালান। তার বিদায়ে ৯ রানেই প্রথম উইকেট হারায় ইংল্যান্ড।

মালান আউট হওয়ার পর একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে যাচ্ছিলেন জনি বেয়ারস্টো। তাকে সাজঘরে ফেরান মোস্তাফিজ। তার দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হওয়ার আগে ২১ বলে ৬টি চার আর এক ছক্কার সাহায্যে ৩৪ রান করেন বেয়ারস্টো। তার বিদায়ে ৪.১ ওভারে ৫১ রানে ২ ওপেনারের উইকেট হারায় ইংল্যান্ড।

মোস্তাফিজের জোড়া শিকারের পর ইংল্যান্ড শিবিরে আঘাত হানেন হাসান মাহমুদ। তার বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন হ্যারি ব্রুক। তিনি ১৫ বলে ১৭ রানে ফেরেন। তার বিদায়ে ৭৩ রানে তৃতীয় উইকেট হারায় ইংল্যান্ড।

দলীয় ১০৭ ও ১১৪ রানে শরিফুল ইসলাম ও তাসকিন আহমেদের শিকার হয়ে ফেরেন জস বাটলারও লিয়াম লিভিংসস্টোন।

এরপর ষষ্ঠ উইকেটে জো রুটের সঙ্গে ৭৯ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের দুয়ারে পৌঁছে দেন মঈন আলি। জয়ের জন্য শেষ দিকে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল মাত্র

সোমবার গুয়াহাটির বারসাপাড়া ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ২৬ রানে ২ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ৫ ও ২ রান করে ফেরেন ওপেনার লিটন দাস এবং তিন নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নামা অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

এরপর মেহেদি হাসান মিরাজের সঙ্গে ৫২ রানের জুটি গড়ে ফেরেন ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম। সাজঘরে ফেরার আগে ৪৪ বলে ৭টি চার আর এক ছক্কায় তানজিদ তামিম করেন ৪৫ রান।

এর আগে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে ৮৮ বলে ১০টি চার আর ২টি ছক্কার সাহায্যে ৮৪ রান করেন তরুণ তামিম।

তামিম আউট হওয়ার পর পাঁচ নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে সুবিধা করতে পারেননি সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। তিনি ১৫ বলে মাত্র ৮ রানে ফেরেন। তার বিদায়ে ২০.৪ ওভারে ১০৪ রানে চতুর্থ উইকেট হারায় বাংলাদেশ।

ছয় নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে ২১ বলে ১৮ রান করে ফেরেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে রিয়াদ ব্যাটিংয়ে নামার আগেই দলের জয় নিশ্চিত হয়। সেই ম্যাচে ব্যাটিং প্র্যাকটিসের সুযোগ পাননি। আজ সুযোগ পেয়েও বড় ইনিংস খেলতে পারেননি।

৩০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল ১৫৩ রান। এরপর শুরু হয় বৃষ্টি। বৃষ্টির কারণে তিন ঘণ্টা পর খেলা শুরু হয়। তাতে ওভার কমে যায় ১৩ ওভার। ম্যাচ নির্ধারণ হয় ৩৭ ওভারে।

বৃষ্টির পর খেলতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে টাইগাররা। বৃষ্টির পর বাংলাদেশ ৭ ওভারে ৩৫ রান তুলতে হারায় ৩ উইকেট।

সর্বশেষ খবর এবং আপডেটের জন্য আমাদের সাবস্ক্রাইব করুন। আপনি যেকোনো সময় বন্ধ করতে পারবেন।

Loading...

আমরা কুকি ব্যবহার করি যাতে অনলাইনে আপনার বিচরণ স্বচ্ছন্দ হয়। সবগুলো কুকি ব্যবহারের জন্য আপনি সম্মতি দিচ্ছেন কিনা জানান। হ্যাঁ, আমি সম্মতি দিচ্ছি। বিস্তারিত