সব খবর সবার আগে
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সারাদেশ

বান্দরবানে শান্তির প্রার্থনা দিয়ে বড় দিনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু

বড়দিন অনুষ্ঠানে খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীরানানা আয়োজনে বান্দরবানে পালিত হচ্ছে খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব বড়দিন। এ উপলক্ষে সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৮ টায় থে‌কেই বড়দিনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় গির্জাগুলোতে।পৃথিবীতে শান্তি কামনাও মানুষের মাঝে ভেদাভেদ দূরের আশাও ব্যক্ত করেন যীশু অনুশারীরা। খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীরা মে‌তে ওঠেন‌ নানা উৎসবে।

0 151

২৫ ডিসেম্বর রাত ১২টা ১মিনিটে প্রার্থনার মধ্য দিয়ে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের সবচে‌য়ে বড় ধর্মীয় উৎসবটি শুরু হয়। বড়দিনকে ঘিরে সকাল থে‌কে জেলা সদর ব্যাপটিস্ট গির্জা,ফারুক পাড়া তুয়ানখুব বম গির্জা বাংলাদেশ খ্রীস্টান ও ফাতিমা রানী ক্যাথলিক গির্জায় আয়োজন করা হয় সমবেত প্রার্থনা।

সকাল থে‌কেই খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বী শিশু, নারী ও পুরুষরা সমবেত প্রার্থনায় মিলিত হয়ে আগামী দিনের অনাগত সুখের জন্য বিশেষ প্রার্থনা এবং আত্মশুদ্ধির মধ্য দিয়ে নতুন বছরের জন্য সুখ শান্তির প্রত্যাশা করেন। এ সময় খ্রিষ্ট ভক্তরা যীশুর পথ নি‌র্দেশনা অনুযায়ী সকলকে একসঙ্গে সুন্দরভাবে পৃথিবীতে বসবাসের আহ্বান জানান।


ফারুক পাড়া তুয়ানখুব বম গিজার বাংলাদেশ খ্রীস্টান লাল বম নামের একজন বলেন, ‘সকালে ঘুম থেকে উঠে ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনার জন্য এসেছি। এখানে মনের ইচ্ছা পোষণ করেছি। সবার জন্য প্রার্থনা করেছি। এছাড়া গত রাত থেকেই পরিবারে এই দিনটি উদযাপন করছি।’
সমবেত প্রার্থনা শে‌ষে সবাই যীশুর আরাধনায় সমবেত সংগীতানুষ্ঠানে মিলিত হন। এ সময় খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীরা সমবেত সংগীতের মধ্য দিয়ে যীশুর বিভিন্ন দিক নি‌র্দেশনা তুলে ধরেন। পরে প্রার্থনা পরিচালনা করেন বান্দরবান ফাতিমা রানী ক্যাথলিক গির্জা ফাদার সুমন পিটার কস্তা সিএসসি।

সর্বশেষ খবর এবং আপডেটের জন্য আমাদের সাবস্ক্রাইব করুন। আপনি যেকোনো সময় বন্ধ করতে পারবেন।

Loading...

আমরা কুকি ব্যবহার করি যাতে অনলাইনে আপনার বিচরণ স্বচ্ছন্দ হয়। সবগুলো কুকি ব্যবহারের জন্য আপনি সম্মতি দিচ্ছেন কিনা জানান। হ্যাঁ, আমি সম্মতি দিচ্ছি। বিস্তারিত